করোনার গ্রাস থেকে বিশ্ব এখনো মুক্তি পায়নি। কেউ জানিনা কবে নাগাদ পাওয়া যাবে নির্মল বাতাসে মাস্ক ছাড়া মন ভরে শ্বাস নেওয়ার স্বাধীনতা।

 

২০২০-এর একটাই প্রত্যাশা সবার, তা হচ্ছে করোনা থেকে নিরাপদে থাকা। আর এজন্য সবাই মাস্ক ব্যবহার করছি। বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ ও সরকারের পক্ষ থেকেও মাস্কের ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। বাড়ির বাইরে বের হলে অবশ্যই সবাইকে মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। তারপরও আজকাল রাস্তায় অনেককেই দেখা যায় মাস্ক ছাড়াই বাইরে যেতে।

অথচ মাস্ক ব্যবহার না করলে হতে পারে জেল-জরিমানার শাস্তি। আবারও জেনে নিন, যাদের-যখন মাস্ক ব্যবহার করতেই হবে:

সরকারি এক পরিপত্রে উল্লেখ করা হয়েছে-

সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালসহ সব স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রে আগত সেবা গ্রহিতারা আবশ্যিকভাবে মাস্ক ব্যবহার করবেন। সংশ্লিষ্ট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিশ্চিত করবেন।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, মসজিদ, মন্দির ও গীর্জাসহ সব ধর্মীয় উপাসনালয়ে মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। স্থানীয় প্রশাসন ও সংশ্লিষ্ট পরিচালনা কমিটি বিষয়টি নিশ্চিত করবেন।

শপিংমল, বিপণিবিতান ও দোকানের ক্রেতা-বিক্রেতারা আবশ্যিকভাবে মাস্ক ব্যবহার করবেন। স্থানীয় কর্তৃপক্ষ ও মার্কেট ব্যবস্থাপনা কমিটি বিষয়টি নিশ্চিত করবেন।

হাট-বাজারে ক্রেতা-বিক্রেতারা মাস্ক ব্যবহার করবেন। মাস্ক পরিধান ব্যতীত ক্রেতা-বিক্রেতারা কোনো পণ্য ক্রয়-বিক্রয় করবে না। স্থানীয় প্রশাসন ও হাট-বাজার কমিটি বিষয়টি নিশ্চিত করবেন।

গণপরিবহনের (সড়ক, নৌ, রেল ও আকাশপথ) চালক, চালকের সহকারী ও যাত্রীদের মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। গণপরিবহনে ওঠার আগে যাত্রীদের মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও মালিক সমিতি বিষয়টি নিশ্চিত করবেন।

গার্মেন্টস ফ্যাক্টরিসহ সব শিল্প কারখানায় কর্মরত শ্রমিকদের মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ও মালিকরা বিষয়টি নিশ্চিত করবেন।

হকার, রিকশা ও ভ্যানচালকসহ সব পথচারীর মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। বিষয়টি আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী নিশ্চিত করবেন।

হোটেল ও রেস্টুরেন্টে কর্মরত ব্যক্তি এবং জনসমাবেশ চলাকালীন আবশ্যিকভাবে মাস্ক পরিধান করবেন। বিষয়টি স্থানীয় প্রশাসন ও সংশ্লিষ্ট মালিক সমিতি নিশ্চিত করবে।

সামাজিক অনুষ্ঠানে আগত ব্যক্তিদের মাস্ক পরিধান নিশ্চিত করতে হবে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান প্রধান নিশ্চিত করবেন।

এছাড়াও বাড়িতে করোনা উপসর্গসহ কোনো রোগী থাকলে পরিবারের সুস্থ সদস্যরা মাস্ক ব্যবহার করবেন।

এবার জেনে নিন মাস্ক কেন মাস্ট? কারণ, মাস্ক করোনার জীবাণু আমাদের শরীরে ঢুকতে বাধা দেয়। মহামারি করোনার গ্রাস থেকে আমাদের জীবন নিরাপদে রাখতে সাহায্য করে।

 

Facebook Comments


No comments so far.

Leave a Reply