ত্বক হল আমাদের সৌন্দর্যের প্রতীক। ত্বককে ভালো রাখার জন্য আমরা অপ্রাণ চেষ্টা করে থাকি। এর পেছনে প্রচুর সময় ও শ্রম অপচয় করে থাকি। দামি দামি ক্যামিকাল প্রোডাক্টও ব্যবহার করি। আবার কেউ কেউ ঘরোয়া পদ্ধতিতে ত্বকের পরিচর্যা করে। দিনের শেষে ভুলেই যাই হাতের কাছে একটি অপরিহার্য উপাদান আছে যা ত্বকের সব সমস্যার সমাধানের জাদুকাঠি। ত্বকের জন্য বরফ এমন একটি উপাদান যা রুপচর্যার কাজে কার্যকারী।

আসুন জেনে নেই ত্বকের সুরক্ষায় বরফের দশটি উপকারিতা-

তাৎক্ষণিকভাবে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায়

বাইরে থেকে আসার পর ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধুতে হবে। তবে তাতেই কিন্তু ময়লা দূর হয় না। লোপকূপের ময়লা ভেতর থেকে দূর করার জন্য এক টুকরো বরফ পুরো মুখে ঘষতে হবে কিছুক্ষন। এতে ত্বক পরিষ্কার হবে এবং উজ্জ্বলতাও বজায় থাকবে।

মেকআপ সুন্দর রাখে

মেকআপ করার আগে মুখে কিছুক্ষণ বরফ ঘষে নেওয়া যেতে পারে। তাহলে অনেকক্ষণ পর্যন্ত মেকআপ সুন্দর থাকবে।

ত্বকে লাবণ্য আসে

বরফ থেরাপি নিয়মিত ব্যবহার করলে রক্ত চলাচল প্রক্রিয়া স্বাভাবিক হয়। ফলে ত্বক ভেতর থেকেই উজ্জ্বল হয়।

ব্রণ দূর করে

ব্রণের অন্যতম কারণ হল ধুলোবালি ও ময়লা। মুখের লোমকূপে ময়লা জমে গেলে ব্রণ হয়। অনেকের ব্রণের দাগ দীর্ঘদিন থাকে। তাদের জন্য বরফ অত্যন্ত কার্যকরী। মুখে বরফ থেরাপি ব্যবহারে ব্রণ দূর হয় এবং ধীরে ধীরে ত্বক মসৃণ হয়।

ত্বকের তৈলাক্ত ভাব দূর হয়

ত্বক তৈলাক্ত হলে মুখ ধোয়ার কিছুক্ষণ পরেই আবার তেলতেলে ভাব চলে আসে। এক্ষেত্রে বরফ টুকরো মুখে ঘষলে অনেক উপকার পাবেন। বরফ ব্যবহারে মুখের লোমকূপ খুলে যায়। ফলে দ্রুত ত্বকের তেল শোষণ করে নেয়।

রোদে পোড়া ভাব দূর করে

কাজ শেষ করে বাসায় এসে যদি দেখেন গায়ের চামড়া রোদে পুড়ে গেছে তাহলে একটা ছোট কাপড়ে কয়েক টুকরো বরফের টুকরো নিয়ে শরীরের পোড়া অংশে লাগাতে হবে। তাহলে ত্বকের পোড়াভাব সহজেই দূর হবে।

ত্বক আকর্ষণীয় হয়

বরফ থেরাপি ব্যবহারে ত্বকের স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা ফিরে আসে। ধুলোবালি, পোড়া ভাব, তৈলাক্ত ভাব দূর করতে বরফ অত্যন্ত কার্যকরী। রাতে বাসায় ফিরে ফেশওয়াস দিয়ে মুখ ধুতে হবে। দুধ ফ্রিজে রেখে বরফ করে নিতে হবে। প্রতিদিন দুই টুকরো দুধের বরফ মুখে ঘষে নিলে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পাবে।

বয়স ঢেকে রাখে

প্রতিদিন মুখে বরফ ব্যবহার করলে বয়সের ছাপ, বলিরেখা দূর হবে সহজেই।

মুখের ফোলা ভাবদূর করে

সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর অনেকের মুখ ও চোখ ফুলে থাকে। রাতে গ্রিন টি বানিয়ে ডিপ ফ্রিজে রেখে দিতে হবে। সকালে কয়েক টুকরো বরফ ত্বকে ঘষে নিলেই তাৎক্ষণিকভাবে ত্বক ফ্রেশ লাগবে এবং চোখ-মুখের ফোলাভাব কমে যাবে।

ত্বকের শুষ্কতা কমায়

অনেকসময় মুখের ত্বক আর্দ্রতা হারিয়ে শুষ্ক হয়ে যায়। তখন মুখমন্ডলের টিস্যুগুলোতে পানির অভাব হয়। ত্বকের মরা কোষ দূর করতে ও আর্দ্রতা বজায় রাখতে বরফ অত্যন্ত কার্যকরী।

সুতরাং ত্বকের সৌন্দর্য ধরে রাখতে বরফ ব্যবহার করতে পারেন নিয়মিত। এতে আপনার ত্বকের স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা বজায় থাকবে এবং ত্বক মসৃণ হবে।

 

Facebook Comments


No comments so far.

Leave a Reply