দেশি রসুনের আচার

দেশি রসুন

প্রাচীন কাল থেকে রসুনের উপকারিতা নিয়ে বিশ্বব্যাপী চর্চা। চিকিৎশাস্ত্রে রসুনের ব্যবহার বহু দিনের। নিয়মিত রসুন খাওয়া রপ্ত করতে পারলে রক্তে কোলেস্টেরলের পরিমাণ এবং উচ্চরক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব। হার্ট অ্যাটাক রুখতেও তার জুড়ি মেলা ভার আমরা রসুন সাধারণত কিনি খাবারের স্বাদ বাড়াতে। মাংস হলেই রসুন একেবারে লাগেই। তবে আসলে ঔষধি গুণের জন্য রসুনের কদর চিরকাল। কাঁচা রসুন খাওয়া বা দেশি রসুনের আচারের অভ্যাস করতে পারলে এড়ানো যায় অসংখ্য রোগভোগ।

দেশি রসুনের আচারের অবিশ্বাস্য ১০ টি গুণ

১) উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা দূর করে। সেই সঙ্গে যক্ষ্মা রোগের হাত থেকে রক্ষা করে।

২)   দেশি রসুনের আচার খেলে হজমশক্তি বাড়ায় ও কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা দূর করে। পাশাপাশি পরিপাকতন্ত্রের নানা সমস্যা দূর করে।

৩) স্তন ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা কমায়। ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে।

৪) যৌন ক্ষমতাও বাড়াতে সাহায্য করে। যৌনমিলনের অসাবধানতাবশত রোগ ট্রিকোমোনিয়াসিসের হাত থেকে রক্ষা করে।
৫)  দেশি রসুনের আচার খেলে যায় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি অ্যালিসিনের প্রাথমিক উপকারিতা হল ক্যান্সার রুখে দেওয়া।

৬) চোখে ছানি পড়ার হাত থেকে রক্ষা করে।
৭) দাদ, খোস-পাঁচড়া ধরণের চর্মরোগের হাত থেকে রক্ষা করে। পাশাপাশি চামড়ায় ফোসকা পড়ার যন্ত্রণা থেকে মুক্তি দেয়।  ত্বককে বুড়িয়ে যাওয়ার হাত থেকে রক্ষা করে। ব্রণ সমস্যা দূরে রাখে।

৮) বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সার যেমন কোলন ক্যান্সার, প্রোস্টেট ক্যান্সার, গলব্লাডার ক্যান্সার,রেক্টাল ক্যান্সারের হাত থেকে মুক্ত রাখে।
৯)  দেশি রসুনের আচার খেলে দেহের অভ্যন্তরীণ ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া এবং কৃমি ধ্বংস করে। ক্ষুধামন্দা ভাব দূর করে।

১০) গাঁটে ব্যথা বা আর্থরাইটিস থেকে স্থায়ী মুক্তি মেলে রসুনে। কোনও অসুখ হলে চিকিৎসকরা নানা অ্যান্টিবায়োটিক প্রয়োগ করেন। এসব অ্যান্টিবায়োটিক ক্ষতিকারক ব্যাক্টেরিয়া মারার পাশাপাশি উপকারী ব্যাক্টেরিয়াগুলিকেও মেরে ফেলে। সেখানে রসুন হচ্ছে অন্যতম প্রাকৃতিক অ্যান্টিবায়োটিক।

 

রসুনের যখন এতো উপকারিতা তাইতো এতো কষ্ট করে রসুন ছিলে আচার তৈরি করি। রসুনের আচারে রসুনের সাথে রয়েছে কালোজিরার মিশ্রন। যদি কেউ জিজ্ঞেস করেন সব থেকে কষ্টের কাজ কি। আমার কাছেতো দেশি রসুন ছেলা। ৫ কেজি রসুন ছিলতে ।কখন যে দুপুর গড়িয়ে রাত হয় বুঝতেই পারিনা। তবে কাজটা প্রচন্ড ভালোবাসি তাই অনবরত করে যাচ্ছি। আর রসুনের আচারে সামান্য টক ফ্লেভারের জন্য ব্যবহার করেছি জপ্লাইয়ের পাল্প।

Facebook Comments


No comments so far.

Leave a Reply